এক দশকেরও বেশি সময় পেরিয়ে বাংলা ছবিতে সীমা বিশ্বাস

RBN Web Desk: ‘ব্যান্ডিট কুইন’ ছবিতে অভিনয় করে পেয়েছিলেন সেরা অভিনেত্রীর জাতীয় পুরষ্কার। এছাড়াও তাঁর ঝুলিতে রয়েছে সঙ্গীত নাটক আকাদেমি পুরষ্কার। বিদেশেও পুরস্কৃত হয়েছেন তিনি। এ হেন দক্ষ অভিনেত্রীকে বাংলা ছবিতে একবারই দেখা গিয়েছিল। রাজীব বিশ্বাস পরিচালিত, ২০০৯ সালের ছবি ‘দুজনে’তে ছিলেন তিনি। এক দশকেরও বেশি সময় পার করে বাংলা ছবিতে আবার অভিনয় করতে চলেছেন সীমা বিশ্বাস।

রাজদীপ পাল ও শর্মিষ্ঠা মাইতি পরিচালিত ‘মনপতঙ্গ’ ছবির একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন তিনি। সীমা ছাড়াও এই ছবিতে অভিনয় করবেন জয় সেনগুপ্ত, তন্নিষ্ঠা বিশ্বাস, শুভঙ্কর মহান্ত, বৈশাখী রায়, অমিত সাহা, অনিন্দিতা ঘোষ, জনার্দন ঘোষ, ত্রিবিক্রম ঘোষ, অনিন্দ রায়। সম্প্রতি কলকাতায় ছবির আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় সীমা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ছবির কলাকুশলীরা।

আরও পড়ুন: নেপথ্যে গাইলেন জলি, স্টেজে দাঁড়িয়ে ঠোঁট মেলালেন রাহুল দেব বর্মণ

‘মনপতঙ্গ’-এর কাহিনী দুটি ছেলেমেয়েকে নিয়ে। তারা একে অপরকে ভালোবেসে গ্রাম থেকে শহরে পালিয়ে আসে। গ্রাম্য সমাজের রক্তচক্ষুকে এড়াতে শহরের পাকা রাস্তার ধারে ঘর বাঁধে তারা। শহুরে জীবনে একটু-একটু করে মানিয়ে নিতে গিয়ে হঠাৎই একদিন তাদের চোখ যায় বড় রাস্তার ধারে এক আসবাবের দোকানে। সেখানে পাওয়া যাচ্ছে এক অপূর্ব সুন্দর ও আকর্ষণীয় সিংহাসন যার নাম ‘ক্ষমতার আসন’। দুজনেই একে অপরকে—ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে—সেই সিংহাসন উপহার দিয়ে চায়। জীবনের প্রতিটি কঠিন ধাপে পা রেখে সঠিক পথে হেঁটে ওই সিংহাসন কেনার যোগ্য হয়ে উঠতে চায় সেই উচ্চাকাঙ্খী দম্পতি। এদিকে লক্ষে পৌঁছনোর আগেই প্রতিটি বাঁকে রয়েছে অজস্র রঙিন ও নিষিদ্ধ আনন্দের হাতছানি। ক্রমশ ভালোবাসার টান কমে আসে, সিংহাসনের লোভে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে দুটি হৃদয়। কিন্তু যে রঙিন আলোর দিকে তারা পতঙ্গের মতো ছুটে চলে তা কি সত্যিই আলো না আগুন? আলোর আকাঙ্খায় শেষে পুড়ে মরতে হবে না তো দুটি উচ্চাকাঙ্খী ছেলেমেয়েকে? উত্তর দেবে ‘মনপতঙ্গ’। 

ছবিতে চিত্রগ্রহণের দায়িত্বে রয়েছেন রাণাপ্রতাপ কারফর্মা। সঙ্গীত পরিচালনায় আছেন অভিজিৎ কুণ্ডু। শব্দগ্রহণে রয়েছেন আদীপ সিং মানকি ও অনিন্দিত রায়। কিছুদিন আগে ছবির শ্যুটিং শুরু হয়েছে।



Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *