লেখিকার চরিত্রে শুভশ্রী, ডাঃ বক্সীকে ফিরিয়ে আনছেন সপ্তাশ্ব

কলকাতা: ‘ঠিক বা ভুল, সবটাই আপেক্ষিক,’ বলেছিলেন ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ ছবির ডাঃ বক্সী। ছবির শেষে তার ঠাঁই হয়েছিল কারাগারে। কিন্তু এই দাপুটে চিকিৎসক কি এত সহজেই হার মানার পাত্র? ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’র এক বছর পর, সেই ডাঃ বক্সীকেই ফিরিয়ে আনছেন পরিচালক সপ্তাশ্ব বসু। এবার ছবির নাম ‘ডাঃ বক্সী’। গতকাল শহরে এক অনুষ্ঠানে ছবির প্রথম পোস্টার প্রকাশ উপলক্ষে পরিচালক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়, মাহি কর. রাহুল রায় ও অন্যান্যরা।

‘প্রতিদ্বন্দ্বী’তে ডাঃ বক্সীর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়। সপ্তাশ্বর নতুন ছবির নামভূমিকায় থাকছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। লেখিকা মৃণালিনীর চরিত্রে দেখা যাবে শুভশ্রীকে। একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে থাকছেন বনি সেনগুপ্ত।

আরও পড়ুন: নেপথ্যে গাইলেন জলি, স্টেজে দাঁড়িয়ে ঠোঁট মেলালেন রাহুল দেব বর্মণ

একটি হত্যাকে কেন্দ্র করে ছবির গল্প দানা বাঁধে। নিরিবিলিতে তার নতুন কাহিনীর প্লট ভাবতে মৃণালিনী পৌঁছে যায় একটি হোটেলে। আচমকা সেই হোটেলেই ঘটে যায় একটি খুন। ধীরে-ধীরে কাহিনীর প্রতিটি চরিত্রই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। কী হয় এরপর? ডাঃ বক্সীই বা এই ঘটনার সঙ্গে কীভাবে যুক্ত?

“আমি মূলত শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখা রহস্যধর্মী গল্পকে ট্রিবিউট জানিয়ে শুরু করলেও শেষপর্যন্ত ছবিটা একটা মৌলিক গতি পায়,” রেডিওবাংলানেট-কে জানালেন সপ্তাশ্ব। “খুন, রহস্যের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে চিকিৎসা জগতের অন্ধকার দিক। এছাড়া এই গল্পে ডাঃ বক্সী ফিরছে অন্য এক অভিনেতার মাধ্যমে। সেখানে দুজন ডাঃ বক্সী কি আসলে এক নাকি আলাদা, সেই রহস্যও থাকছে গোটা ছবিতে।”



ছবির কাহিনীকার অর্ণব ভৌমিক এবং শুভাশিস গুহ। “‘প্রতিদ্বন্দ্বী’র গল্প লেখার সময়ই সপ্তাশ্ব আমাকে বলে ডাঃ বক্সীকে যদি কোনওভাবে আবার ফেরানো যায়,” বললেন অর্ণব। “আমরা তাই আবার চিন্তাভাবনা শুরু করি। বর্তমানে ডাক্তার বা অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর আমরা ভীষণভাবে নির্ভরশীল। তাঁরা আমাদের কাছে ভগবানতুল্য। তবু কিছু ক্ষেত্রে তাঁদের গাফিলতিতে মানুষের প্রাণসংশয় ঘটে। সেই নিয়েই এই গল্পের বুনন।”

আরও পড়ুন: নব্বইয়ের ‘সত্যান্বেষী’, বাদ পড়লেন ব্যোমকেশ

শুভশ্রী জানালেন, “খুবই ইন্টারেস্টিং একটা চরিত্রে দর্শক আমাকে দেখতে পাবেন। ছবির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত টানটান রহস্য থাকবে, এটুকু বলতে পারি।”

ছবির শ্যুটিং শুরু হবে শীঘ্রই। কলকাতার পরিচিত আবহ থেকে বেরিয়ে মূলত কালিম্পংয়ের বিভিন্ন জায়গায় হবে শ্যুটিং। এছাড়া থাকবে দুর্গাপুরের কিছু লোকেশনও।

আগামী বছর ঈদের সময় মুক্তি পাবে ‘ডঃ বক্সী’।

ছবি: প্রবুদ্ধ নিয়োগী



Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *