এবার এনকাউন্টার স্পেশালিস্ট রজতাভ

RBN Web Desk: প্রথমবার একজন এনকাউন্টার স্পেশালিস্টের চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন রজতাভ দত্ত। পরিচালক অরিন্দম ভট্টাচার্যের পরবর্তী ছবি ‘অন্তর্ধান’-এ তদন্তকারী অফিসার নীলাদ্রি সেনের ভূমিকায় দেখা যাবে তাঁকে। থ্রিলারধর্মী এই ছবির অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, তনুশ্রী চক্রবর্তী, মমতা শংকর, সুজন মুখোপাধ্যায়, হর্ষ ছায়া ও মোহর চৌধুরী।

ছবিতে নীলাদ্রি একজন একা মানুষ, অবসর সময়ে মেয়ের সঙ্গে ফোনে কথা বলে। নিজের কাজের জায়গায় নীলাদ্রি খুব দক্ষ একজন অফিসার। কঠিন মানুষ নীলাদ্রিকে একেবারেই মিষ্টভাষী বলা চলে না। সে ইনসমনিকও, সারারাত জেগে থেকে ভোরবেলা সামান্য ঘুমোয়। এর সঙ্গে নীলাদ্রি অ্যালেকোহলিক, তবে তার হাতের টিপ অব্যর্থ।

“চরিত্রটা শুনেই ইন্টারেস্টিং লেগেছিল,” রেডিওবাংলানেট-কে বললেন রজতাভ। “ঠিক এরকম একটা চরিত্র আগে করিনি। যে মেয়েটির হারিয়ে যাওয়া নিয়ে গল্প, সেই মেয়েটির বয়সও নীলাদ্রির মেয়ের মতোই। তাই এই কেসটার সঙ্গে সে মানসিকভাবে জড়িয়ে পড়ে।”

আরও পড়ুন: ফাগুন লেগেছে বনে বনে

এর আগে অরিন্দমের সঙ্গে স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি ‘অপরিচিত’-তে কাজ করেছেন রজতাভ। “অরিন্দম চমৎকার মানুষ,” বললেন তিনি। “থ্রিলার ও হরর মিশিয়ে যে কটা ছবি ও করেছে সবকটাই আমার বেশ ভালো লেগেছে। ওর প্রথম ছবি ‘অন্তর্লীন’-এর সময়েই আমার সঙ্গে কথা হয়েছিল। কিন্তু যখন ও কাজটা শুরু করবে বলে ঠিক করে, তখন আর আমার হাতে ডেট ছিল না। তখন থেকেই ওর সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছেটা থেকে গিয়েছিল। সেটা এতদিনে সম্ভব হলো।”

‘অন্তর্ধান’এর আউটডোর শুটিং হয়েছে সিমলায়। সেই প্রসঙ্গে রজতাভ জানালেন, “’অন্তর্ধান’-এর চিত্রনাট্য আর নীলাদ্রির চরিত্রটা পছন্দ হওয়ার পাশাপাশি এই ছবিতে অভিনয় করার আরও একটা বড় কারণ হলো আমার সহশিল্পীরা। পরম অনেকদিনের বন্ধু। তনুশ্রীর সঙ্গেও ‘অপরিচিত’ ছাড়াও বেশ কয়েকটা কাজ করলাম। মমদিকে তো বহুদিন ধরেই চিনি। কাজেই এদের সঙ্গে আউটডোরে কাজ করতে পারাটাও একটা আনন্দের অভিজ্ঞতা। তাছাড়া অরিন্দমের ছবির লোকেশনও খুব লোভনীয় হয়। ‘অন্তর্লীন’ দেখেই সেটা বুঝেছিলাম।”

 ১৭ এপ্রিল মুক্তি পেতে চলেছে ‘অন্তর্ধান’। 

Amazon Obhijaan



Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *