৪০ দিনের লড়াই শেষ, প্রয়াত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

RBN Web Desk: শেষ হলো ৪০ দিনের লড়াই। প্রয়াত হলেন কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। ৬ অক্টোবর শারীরিক অসুস্থতার কারণে তাঁকে বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে মেডিকেল রিপোর্টে তাঁর শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পরে। আজ বেলা ১২.১৫ নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

সম্প্রতি তাঁকে নিয়ে একটি তথ্যচিত্র শুট করতে গিয়েই করোনায় আক্রান্ত হন সৌমিত্র। শেষ পর্যায়ে তাঁকে ভেন্টিলেশনেও দেওয়া হয়। শুরুর দিকে চিকিৎসায় সাড়া দিলেও তাঁর শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি ঘটছিল। সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল মানসিক অসুস্থতাও। পরে কিডনিতে সংক্রমণও ধরা পড়ে। শরীরে অক্সিজেন মাত্রায়ও তারতম্য ছিল।

আরও পড়ুন: সব কান্নার শব্দ হয় না, বেজে উঠল পটদীপ

সত্যজিৎ রায়ের ‘অপুর সংসার’-এর নামভূমিকায় অভিনয় করে বাংলা ছবির জগতে পা রাখেন সৌমিত্র। এরপর একে-একে ‘তিন কন্যা’, ‘ঝিন্দের বন্দী’, ‘অভিযান’, ‘চারুলতা’, ‘তিন ভুবনের পাড়ে’, ‘বসন্ত বিলাপ’, ‘হীরক রাজার দেশে’র মতো অসংখ্য ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। সত্যজিৎ সৃষ্ট গোয়েন্দা চরিত্র ‘ফেলুদা’-কে দর্শক মহলে জনপ্রিয় করে তোলেন। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি থিয়েটার, আবৃত্তি সব বিষয়েই বিস্তৃত পরিধি ছিল সৌমিত্রর।

গতবছর নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘিদন অসুস্থ ছিলেন অভিনেতা। তবে সে ধাক্কা সামলে কাজে ফেরেন তিনি। সাম্প্রতিক করোনা দাপটের জেরে লকডাউনের পর রাজ্য সরকার থেকে শুটিং শুরুর অনুমতি পাওয়ার দিন থেকেই কাজে ফেরেন সৌমিত্র। এই বয়সেও সাহসে ভর করে তাঁর কাজে ফেরার তাগিদ ছিল সত্যিই প্রশংসনীয়। তাঁর অভিনীত ‘বেলাশুরু’ ও ‘অভিযান’ মুক্তির অপেক্ষায়। শেষোক্ত ছবিটি তাঁরই বায়োপিক।

Amazon Obhijaan



Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *